alo
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে ব্যবসায়ী হত্যায় ২ জনের ফাঁসি ২ জনের যাবজ্জীবন

প্রকাশিত: ৩১ জুলাই, ২০২২, ০৪:২০ পিএম

চট্টগ্রামে ব্যবসায়ী হত্যায় ২ জনের ফাঁসি ২ জনের যাবজ্জীবন
alo

 

চট্টগ্রাম ব্যুরোঃ চট্টগ্রামের ডবলমুরিংয়ে ২০১৬ সালের নভেম্বরে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয় ব্যবসায়ী জালাল উদ্দীনকে। এই খুনের ঘটনায় দুই জনের মৃত্যুদন্ড ও দুই জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। 

রবিবার (৩১ জুলাই) দুপুরে চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ শরীফুল আলম ভূঁঞার আদালত এ দণ্ডাদেশ দেন।

 বিষয়টি নিউজনাউকে নিশ্চিত করেছেন আদালতের অতিরিক্ত কৌশুলী অ্যাডভোকেট নোমান চৌধুরী।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- কামাল হোসেন ও মো. রাসেল। আর যাবজ্জীবন সাজা হয়েছে লিলু আক্তার রিনা ও সুরমা আক্তারের। তাদের মধ্যে কামাল হোসেনের স্ত্রী লিলু আক্তার পলাতক। বাকি তিন আসামিকে রায় ঘোষণার পর কারাগারে পাঠানো হয়।

আদালত সূত্রে জানান যায়, জালাল উদ্দিন সুলতান ব্যবসায়ী ছিলেন। আর কামাল বিভিন্ন সময় গাড়ি চালাতেন। কামালের গাড়ি চালানোর সুবাদে জালালের সাথে পরিচয়। ২০১৬ সালের ১৯ নভেম্বর ডবলমুরিং থানার সিডিএ আবাসিক এলাকা থেকে জালাম উদ্দিন সুলতানকে নগরের আগ্রাবাদের নিজের অফিস থেকে ডেকে নিয়ে হত্যা করে আসামিরা। হত্যাকাণ্ড সংগঠিত হয় নগরের মাদারবাড়ির ২ নং রোডের থানা ভবনের তৃতীয় তলায়। হত্যার পর আসামিরা নিহতের মরদেহ ডবলমুরিং থানার সিডিএ আবাসিক এলাকার ব্যাংক কলোনীর উত্তর গেট থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় ফেলে যায়।

এই ঘটনায় নিহতের ছেলে ইমাজ উদ্দিন সুলতান বাদী হয়ে ডবলমুরিং থানায় অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। এরপর ২০১৭ সালের ২৮ মে  চারজনকে দায়ি করে পুলিশ আদালতে মামলার অভিযোগপত্র দাখিল করেন। একই বছরের ৯ অক্টোবর আসামিদের বিচার শুরু হয়। 

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অতিরিক্ত কৌশুলী অ্যাডভোকেট নোমান চৌধুরী নিউজনাউকে বলেন, বিচার শুরর পর ৩৩ জন সাক্ষীর মধ্যে ২২ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে রবিবার আদালত এই রায় ঘোষণা করেন।

তিনি বলেন, ভিকটিমকে পরিকল্পিতভাবে ডেকে নিয়ে গিয়ে চাঁদা দাবি করেছিল আসামিরা। উনি টাকা দিতে শুরুতে অস্বীকার করেন। পরে তিনি টাকা দিতে রাজি হলেও নির্মমভাবে হত্যা করে লাশ গুমের জন্য বস্তাবন্দি করে ফেলে দেওয়া হয়।

আসামিরা সবাই ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। ঘটনা কীভাবে ঘটিয়েছে তা তারাই জানিয়েছে। আমরা ২২ জন সাক্ষী উপস্থাপন করেছি। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এ রায় দিয়েছেন আদালত বলে জানান নোমান চৌধুরী।

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২২

X