alo
ঢাকা, শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ৩, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ২১ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বিদায় বেলায় নিজে কাঁদলেন, সবাইকে কাঁদালেন ইউএনও জোবায়ের

প্রকাশিত: ২৫ জানুয়ারী, ২০২৩, ১২:৫১ এএম

বিদায় বেলায় নিজে কাঁদলেন, সবাইকে কাঁদালেন ইউএনও জোবায়ের
alo

 

কর্ণফুলী প্রতিনিধি: সময়টা মঙ্গলবার দুুপুর ১২টা। আনোয়ারা উপজেলা পরিষদের দ্বিতল ভবনে তখন সৃষ্টি হয়েছে আবেগঘন এক পরিবেশ। দীর্ঘ চার বছরের কাছাকাছি সময় আনোয়ারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হিসেবে দায়িত্বপালন শেষে শেষ বারের মতো নিজ অফিস থেকে বের হচ্ছেন। তার অফিসের সামনে দাঁড়িয়ে আছেন উপজেলা প্রশাসন, পরিষদ এর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। তাদের সাথে যোগ দিয়েছেন উপজেলায় কর্তব্যরত অর্ধশতাধিক সংবাদকর্মী এবং স্থায়ীয় বাসিন্দারাও। তাদের সবার মুখ মলিন। নিজ কক্ষ থেকে ইউএনও শেখ জোবায়ের আহমেদ বের হয়ে একে একে বিদায় নিতে শুরু করা মাত্র উপস্থিত সবাই আবেগ নিয়ন্ত্রণ রাখতে ব্যর্থ হন। চোখ দিয়ে অনর্গল ঝড়তে থাকে অশ্রু।

সবাই ফুলের বৃষ্টি ছুড়তে শুরু করেন ইউএনওকে। এবার ইউএনও জোবায়েরকেও সংক্রমিত করে সেই অশ্রুধারা। এই কান্নার বৃষ্টি মুহূর্তেই ছড়িয়ে পরে চারিদিকে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বিদায় মুহূর্তে এমন অভূতপূর্ণ দৃশ্যের মুখোমুখি হলো আনোয়ারাবাসী। 

মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) আনোয়ারা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে ছিল তার শেষ কর্মদিবস। 

শেখ জোবায়ের আহমেদ আনোয়ারা উপজেলাতে দীর্ঘ ৩ বছর ১১ মাস দায়িত্বপালন শেষে গোপালগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে পদোন্নতি পেয়েছেন।

বিদায়বেলায় আনোয়ারা সদরের বাসভবন থেকে পুরো উপজেলা ডরমিটরি এলাকা ঘুরে নিজের গাড়ীতে ওঠেন শেখ জোবায়ের আহমেদ। তার গাড়িটি উপজেলা পরিষদ গেট পার হতেই আনোয়ারার বিভিন্ন জায়গা থেকে আসা মোটরসাইকেল আরোহীরা তার সাথে যোগ দেন। যোগ দেন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার লোকজনও। শুধু মোটরসাইকেল নয়, প্রাইভেটকার ও সিএনজি করে আসা লোকজনও শেখ  জোবায়ের আহমেদকে এগিয়ে দিতে যুক্ত হন গাড়ি বহরে। সবমিলিয়ে যেন এক অনবদ্য সৌন্দর্য দেখলো আনোয়ারাবাসী।

এদিকে, আনোয়ারা সদর পাড় হতে সোনালী ব্যাংকের সামনে কালাবিবির দিঘি মোড়, টানেল রোডেও লোকজন নেমে এসে ফুল আর উপহার দিয়ে জড়িয়ে নেন সদ্য বিদায়ী ইউএনওকে। গাড়িবহর থামিয়ে বিদায়ী শুভেচ্ছা জানিয়েছে কর্ণফুলী উপজেলার মিয়ার হাটে অপেক্ষা করা শিক্ষার্থীরাও।

সর্বশেষ কর্ণফুলী উপজেলার শিকলবাহা ক্রসিং এলাকায় থামে সদ্য বিদায় ইউএনওর গাড়িবহর। সবাই গাড়ি থেকে নেমে কোলাকুলি করে বিদায় নিবেন; এমন সময়ে আবারও পড়ে গেলো কান্নার রোল। নিজে কাঁদলেন, আর সবাইকে কাঁদিয়ে গেলেন তিনি।

এর আগে সোমবার রাতে উপজেলা অফিসার্স ক্লাবের পক্ষে সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আবদুল্লাহ্ আল মুমিনের সঞ্চালনায় ও উপজেলা চেয়ারম্যান তৌহিদুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে এক বিদায় সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। 

এসময় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক এম.এ মান্নান চৌধুরী, উপজেলা ভাইস  চেয়ারম্যান মৃণাল কান্তি ধর, বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবদুল মান্নান, মৎস্য কর্মকর্তা রাশিদুল হক, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জামিরুল ইসলাম, ওসি মীর্জা মোহাম্মদ হাসান, আনোয়ারা প্রেসক্লাবের সভাপতি এম.কে নুরুল ইসলাম, বারশত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম.এ কাইয়ূম শাহ্।

এছাড়াও লন্ডন থেকে ভিডিও কন্সফারেন্সে যুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখেন সাবেক উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. তানভীর হাসান চৌধুরী।

নিউজনাউ/আরএইচআর/২০২৩

X