alo
ঢাকা, শনিবার, ডিসেম্বর ১০, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মানহীন শিক্ষাদান শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতারণার শামিল: নওফেল

প্রকাশিত: ২৫ নভেম্বর, ২০২২, ১০:০৩ পিএম

মানহীন শিক্ষাদান শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতারণার শামিল: নওফেল
alo

চট্টগ্রাম ব্যুরো: শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীর নওফেল বলেছেন, প্রতিষ্ঠানগুলো উচ্চশিক্ষা দেয়ার কথা বলে ডেকে শিক্ষার্থীদের নিয়ে যাচ্ছে। অথচ মান নিশ্চিত করে তাদের কাঙ্খিত শিক্ষা দেয়া হচ্ছে না। কর্মজগতে প্রবেশ করে দেখতে পাচ্ছে দক্ষতার অভাবে তারা অনুপুযুক্ত। এ অবস্থায় অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিল প্রতিষ্ঠা বাংলাদেশের একটি যুগান্তরকারী অর্জন। অ্যাক্রেডিটেশন বাধ্যতামূলক হয়ে যাবে। এটা ছাড়া শিক্ষার্থীরা চাকরি পাবে না। শুধু উচ্চতর ডিগ্রি নয়, ভবিষ্যতে ডিপ্লোমাকেও অ্যাক্রেডিটেশনের আওতায় আনতে হবে। 
শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) চট্টগ্রাম নগরের দামপাড়ায় প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির কেন্দ্রীয় অডিটোরিয়ামে ‘উচ্চশিক্ষা বিষয়ে উদ্বুদ্ধকরণ’ শীর্ষক কর্মশালায় উপমন্ত্রী এসব কথা বলেন। উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষা কার্যক্রমের মানদন্ড নির্ধারণে গঠিত বাংলাদেশ অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিল এ কর্মশালার আয়োজন করে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, ‘মানহীন শিক্ষাদান শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতারণার শামিল। আন্তর্জাতিক বা বৈশ্বিক মানদÐ বজায় রেখে উচ্চশিক্ষা না দিলে সেটা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতারনাই করা হয়। উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর গুণগত মান নিশ্চিত করার জন্য অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিলের সৃষ্টি হয়েছে।
প্রতিষ্ঠানগুলো উচ্চশিক্ষা দেয়ার কথা বলে ডেকে শিক্ষার্থীদের নিয়ে যাচ্ছে। অথচ মান নিশ্চিত করে তাদের কাঙ্খিত শিক্ষা দেয়া হচ্ছে না। কর্মজগতে প্রবেশ করে দেখতে পাচ্ছে দক্ষতার অভাবে তারা অনুপুযুক্ত। এ অবস্থায় অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিল প্রতিষ্ঠা বাংলাদেশের একটি যুগান্তরকারী অর্জন। অ্যাক্রেডিটেশন বাধ্যতামূলক হয়ে যাবে। এটা ছাড়া শিক্ষার্থীরা চাকরি পাবে না। শুধু উচ্চতর ডিগ্রি নয়, ভবিষ্যতে ডিপ্লোমাকেও অ্যাক্রেডিটেশনের আওতায় আনতে হবে।’
বাংলাদেশ অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিলের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মেসবাহউদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে কর্মশালায় কাউন্সিলের পূর্ণকালীন সদস্য অধ্যাপক ড. সঞ্জয় কুমার অধিকারী ও ড. এস এম কবীর কর্মশালায় মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। এতে আরও বক্তব্য রাখেন- প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. অনুপম সেন ও পরিচালক ড. তৌফিক সাঈদ এবং কাউন্সিলের সচিব অধ্যাপক এ কে এম মনিরুল ইসলাম।
কর্মশালায় চট্টগ্রাম অঞ্চলের ১৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, উপ-উপাচার্য, ডিন, বিভিন্ন ইনস্টিটিউটের পরিচালক ও বিভাগীয় প্রধান, চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান, চট্টগ্রাম অঞ্চলের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের পরিচালক এবং ১২টি সরকারি-বেসরকারি কলেজ ও মাদরাসার অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষরা অংশ নেন।

 নিউজনাউ/পিপিএন/২০২২

X