alo
ঢাকা, সোমবার, অক্টোবর ৩, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

উদ্বোধন হলো ভারতের তৈরি প্রথম বিমানবাহী রণতরী

প্রকাশিত: ০২ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০৩:৫০ পিএম

উদ্বোধন হলো ভারতের তৈরি প্রথম বিমানবাহী রণতরী
alo

নিউজনাউ ডেস্ক: ভারতে নতুন একটি বিমানবাহী রণতরী উদ্বোধন করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। দেশটিতে তৈরি হওয়া এই রণতরীর নাম আইএনএস বিক্রান্ত।

 

শুক্রবার (২ সেপ্টেম্বর) দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য কেরালার কোচিন শিপইয়ার্ডে জমকালো অনুষ্ঠানে রণতরীটি উদ্বোধন করা হয়।

এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। আইএনএস বিক্রান্তের ওজন ৪৫ হাজার টন এবং এটি নির্মাণে ভারতের খরচ হয়েছে ২০ হাজার কোটি রুপি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, ২৬২ মিটার উঁচু, ৬২ মিটার চওড়া আইএনএস বিক্রান্ত ভারতে তৈরি সবচেয়ে বড় যুদ্ধজাহাজ। এই রণতরীতে প্রায় ১ হাজার ৬০০ ক্রু সদস্যের থাকার ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়া রণতরীটিতে ৩০টি বিমান ওঠানামা করতে পারবে।

মিগ-২৯কে-র মতো যুদ্ধবিমানও ওঠানামা করার সুবিধা থাকবে এই যুদ্ধজাহাজে। ৪৫ হাজার টনের এই যুদ্ধজাহাজ তৈরিতে খরচ হয়েছে ২০ হাজার কোটি রুপি।

এক দশকেরও বেশি সময় ধরে এই রণতরী নির্মাণের কাজ চলে। গত বছরের আগস্টে ‘সি ট্রায়াল’ শুরু করা হয়েছিল। প্রায় এক বছর ধরে এই ‘ট্রায়াল’ প্রক্রিয়া চলেছে। ভারতীয় নৌবাহিনীর পক্ষ থেকে আগেই জানানো হয়, পরীক্ষামূলক প্রক্রিয়া সফল হয়েছে।

প্রসঙ্গত, আইএনএস বিক্রান্ত নামে ভারতের কাছে আগেও একটি রণতরী ছিল। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সে সময় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল ‘আইএনএস বিক্রান্ত’। নব্বইয়ের দশকের শেষের দিকে বিক্রান্ত অবসর নেয়। ভেঙে ফেলা হয় জাহাজটি। তারই স্মৃতিতে একই নামে ভারতে তৈরি করা হয়েছে এই যুদ্ধজাহাজ।

বিক্রান্তের আগে ভারতের হাতে আগে একমাত্র বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজ হিসাবে ছিল ‘আইএনএস বিক্রমাদিত্য’। ২০১৪ সালে রাশিয়া থেকে কেনা হয়েছিল ওই রণতরী।

বিক্রান্ত হাতে পাওয়ার পর বিমানবাহী রণতরী নির্মাণকারী দেশ হিসেবে আমেরিকা, ব্রিটেন, রাশিয়া, চীন, ফ্রান্সের মতো দেশের তালিকায় ঢুকে পড়ল ভারত। এছাড়া আইএনএস বিক্রান্তে যে সব মেশিন বা সরঞ্জাম ব্যবহার করা হয়েছে, সেগুলোও নেওয়া হয়েছে ভারতেরই বিভিন্ন সংস্থা থেকে।

বিমানবাহী এই রণতরী উদ্বোধনের পর মোদি বলেন, ‘আজ এই ঐতিহাসিক মুহূর্তে শিপইয়ার্ডের সব ইঞ্জিনিয়ার, বৈজ্ঞানিক ও শ্রমিক যারা এই স্বপ্ন সত্যি করেছেন, তাদের অভিনন্দন জানাই।’

তিনি উল্লেখ করেন, এই রণতরীর এয়ারবেসে যে স্টিল লাগানো হয়েছে, সেটিও দেশেই তৈরি। ভারতের প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা (ডিআরডিও)-র গবেষকদের প্রযুক্তিতে ভারতীয় সংস্থা সেই স্টিল তৈরি করেছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

মোদির ভাষায়, ‘আগে ভারতের জন্য যা কল্পনাও করা যেত না, এবার সেটিই সত্যি হলো।’

নিউজনাউ/এসকে/২০২২ 

X