alo
ঢাকা, শনিবার, ফেব্রুয়ারী ৪, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ২২ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মিতু হত্যা: পলাতক ২ আসামির জন্য পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের নির্দেশ

প্রকাশিত: ৩০ নভেম্বর, ২০২২, ০৯:৪১ পিএম

মিতু হত্যা: পলাতক ২ আসামির জন্য পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের নির্দেশ
alo

 

চট্টগ্রাম ব্যুরো: সাবেক পুলিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলায় পলাতক দুই আসামিকে আদালতে হাজির হতে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের আদেশ দিয়েছেন আদালত। এরা হল- মো. কামরুল ইসলাম শিকদার মুসা ও খাইরুল ইসলাম কালু।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) চট্টগ্রামের অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আবদুল হালিমের আদালত এ আদেশ দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার মো. কামরুল হাসান।

তিনি বলেন, মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলায় পলাতক মো. কামরুল ইসলাম শিকদার প্রকাশ মুসা ও মো. খাইরুল ইসলাম প্রকাশ কালু নামে দুই আসামির ঠিকানায় গিয়ে তাঁদের খুঁজে পায়নি পুলিশ। মামলা শুরু করার আগে দুই আসামিকে আদালতে হাজির হওয়ার জন্য পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

চাঞ্চল্যকর এ মামলায় গত ১৩ সেপ্টেম্বর তদন্ত সংস্থা পিবিআই সাতজনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। এতে প্রধান আসামি করা হয় মিতুর স্বামী বাবুল আক্তারকে। অভিযোগপত্রে আরও যাদের আসামি করা হয়েছে তারা হলেন- মো. কামরুল ইসলাম শিকদার মুসা, এহতেশামুল হক প্রকাশ হানিফুল হক প্রকাশ ভোলাইয়া, মো. মোতালেব মিয়া ওয়াসিম, মো. আনোয়ার হোসেন, মো. খাইরুল ইসলাম কালু এবং শাহজাহান মিয়া।

এতে মুসা ও কালুকে পলাতক হিসেবে উল্লেখ করা হয়। গত ১০ অক্টোবর আদালত অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ৬ জুন সকালে চট্টগ্রাম নগরের জিইসি এলাকায় ছেলেকে স্কুল বাসে তুলে দিতে গিয়ে দুর্বৃত্তদের গুলি ও ছুরিকাঘাতে নিহত হন মাহমুদা খানম মিতু। এ ঘটনার পর দিন তার স্বামী বাবুল আক্তার অজ্ঞাত তিন জনকে আসামি করে পাঁচলাইশ থানায় মামলা করেন। পরে পিবিআইয়ের তদন্তে উঠে আসে, বাবুল আক্তারের পরিকল্পনায় মিতুকে হত্যা করা হয়েছে। পরে মিতুর বাবা মোশাররফ হোসেন বাদী হয়ে বাবুল আক্তারসহ সাত জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এই মামলায় বাবুল আক্তারকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২২

X