alo
ঢাকা, শুক্রবার, ডিসেম্বর ৯, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
logo

ষাটোর্ধ ব্যক্তির বিরুদ্ধে বলাৎকারের অভিযোগ, দোষ দিলেন শয়তানের


Anwar Kanon   প্রকাশিত:  ০৮ ডিসেম্বর, ২০২২, ১১:০৩ এএম

ষাটোর্ধ ব্যক্তির বিরুদ্ধে বলাৎকারের অভিযোগ, দোষ দিলেন শয়তানের

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রামের রাউজানে চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রকে বলাৎকারের চেষ্টার পাশাপাশি কামড়ে রক্তাক্ত করার অভিযোগে জালাল আহম্মদ (৬০) নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারের পর জালাল দাবি করেছেন, শয়তানের ধোঁকায় পড়ে এমন কাজ করেছেন তিনি। তাতে তার দোষ নেই।

তবে এবারই প্রথম নয়, এর আগেও একই ধরণের ঘটনায় জালাল জেল খেটেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।  

বুধবার (৩১ আগস্ট) ভোরে উপজেলার নোয়াপাড়া ইউনিয়নের পাঁচখাইন এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার বাড়ি চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার আমিরাবাদ সুন্নিয়াপাড়া এলাকায়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার  ক্লাস শেষে স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে ভিকটিম ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রকে মোবাইল ও টাকার লোভ দেখিয়ে পার্শ্ববর্তী জঙ্গলে নিয়ে যান জালাল। সেখানে তাকে জোরপূর্বক বলাৎকারের পাশাপাশি কামড়ে রক্তাক্ত করেন তিনি। শিশুটি কাঁদতে কাঁদতে বাড়ি এসে তার মাকে বিস্তারিত খুলে বলেন। পরে তার মা জালালকে আসামি করে রাউজান থানায় মামলা করেন।

মামলার পরপরই পুলিশ গ্রেপ্তার অভিযানে নামে। এদিকে পরিস্থিতি বেগতিক দেখে সটকে পড়েন জালাল। রাতভর বিভিন্ন পয়েন্টে চিরুনি অভিযানের পর বুধবার ভোরে রাউজানের নোয়াপাড়া ইউনিয়নের পাঁচখাইন এলাকার এক মাজার প্রাঙ্গণ থেকে তাকে আটক করা হয়েছে। 

জানা গেছে, গ্রেপ্তার জালাল একজন দুশ্চরিত্র লোক হিসেবে এলাকায় পরিচিত। এর আগেও তাকে একই অপরাধে গণধোলাই দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে সহকারী পুলিশ সুপার মো. আনোয়ার হোসেন শামীম বলেন, নিজের স্ত্রী থাকা সত্ত্বেও জালালের বিরুদ্ধে একের পর এক শিশু বলাৎকারের অভিযোগ থেকে এটাই প্রতীয়মান হয় যে, তিনি সম্ভবত বিকৃত যৌনাচারে অভ্যস্ত। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ ও আরও তথ্য উদঘাটনের জন্য রিমান্ডের আবেদন করা হবে।

রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহ আল হারুন বলেন, গ্রেপ্তার জালাল আহম্মদকে একজন অভ্যাসগত শিশু বলাৎকারকারী হিসেবে আমরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি। ২০১৫ সালেও শিশু বলাৎকারের ঘটনায় কয়েক মাস জেল খাটেন তিনি।

 

X