alo
ঢাকা, মঙ্গলবার, অক্টোবর ৪, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৯ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

৫ টাকা কমানো জনগণের সাথে তামাশা মাত্র: বাসদ

প্রকাশিত: ৩০ আগস্ট, ২০২২, ০৭:২০ পিএম

৫ টাকা কমানো জনগণের সাথে তামাশা মাত্র: বাসদ
alo

 

নিউজনাউ ডেস্ক: অস্বাভাবিকভাবে দাম বৃদ্ধির পর ডিজেল, কেরোসিন, পেট্রোল ও অকটেনের দাম লিটারে পাঁচ টাকা কমানোকে জনগণের সাথে তামাশা অভিহিত করেছেন বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক বজলুর রশীদ ফিরোজ। তিনি অবিলম্বে ৫ আগষ্ট পূর্ববর্তী সময়ের দাম নির্ধারণ করার দাবি জানান।

মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) গণমাধ্যমে দেয়া এক বিবৃতিতে তিনি এই মন্তব্য করেন।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, দাম বৃদ্ধির পর প্রতি লিটার ডিজেল ও কেরোসিন বিক্রি হচ্ছে ১১৪ টাকায়; ৫ টাকা কমানোর পর বিক্রি হবে ১০৯ টাকায়। অকটেন বিক্রি হচ্ছে প্রতি লিটার ১৩৫ টাকায়, এটি নামবে ১৩০ টাকায়। পেট্রোল বিক্রি হচ্ছে ১৩০ টাকায়, তা কমে হবে ১২৫ টাকা।

বিবৃতিতে কমরেড ফিরোজ বলেন, বিশ্ববাজারে দাম বৃদ্ধি, বিপিসির লোকসান এবং জ্বালানি তেল পাচারের অজুহাত তুলে সরকার গত ৫ আগস্ট সকল প্রকার জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি ঘটিয়েছিল। এর সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়িয়ে দিয়েছিল বাসসহ পরিবহন ভাড়া এবং দ্রব্যমূল্য। সে সময় যুক্তিসঙ্গতভাবে প্রমাণ করা হয়েছিল যে, দুর্নীতি, লুটপাট বন্ধ করলে তেলের মূল্যবেৃদ্ধি করার তো কোন কারণ নেই বরং পূর্বের দামেই বিক্রি করা সম্ভব। বিশ্ববাজারে তেলের দাম নিম্নমুখী এবং বিপিসির আর্থিক হিসাবের অসঙ্গতি (যা সংসদীয় কমিটি বলেছে) দূর করলে জ্বালানি তেলের দাম কমানো সম্ভব, এটা এখন প্রমাণিত।

ফিরোজ বলেন, জনমনের অসন্তোষকে প্রশমিত করার নামে গতকাল সকল প্রকার জ্বালানির দাম লিটার প্রতি ৫ টাকা কমানোর যে ঘোষণা সরকার দিয়েছে তা জনগণের সাথে তামাশা এবং ব্যবসায়ীদের সুবিধা বৃদ্ধির নতুন পাঁয়তারা এই মূল্যকমানোর কারণে পরিবহনের ভাড়া কমবে না বরং পরিবহন মালিকদের লাভ বাড়বে এবং সরকারের রাজস্ব কমবে মাত্র।

তিনি বলেন, এক ধাক্কায় দাম বাড়িয়ে অল্প অল্প করে কমানোর এই নীতি মূলত ব্যবসায়ী তোষণ নীতি। এতে জনগণের উপকার হয় না বরং ব্যবসায়ীদের মুনাফা বৃদ্ধি হয় মাত্র। ডিজেল, কেরোসিন, পেট্রোল ও অকটেনের দাম কমিয়ে পূর্বের দাম নির্ধারণ করার দাবি জানান তিনি।

নিউজনাউ/পিপিএন/আরবি/২০২২

X